Home / হোস্টিং / হোস্টিং ধরন টিউটোরিয়াল

হোস্টিং ধরন টিউটোরিয়াল

হোস্টিং কয়েক ধরনের হতে পারে ১.বিনামূল্যে হোস্টিং করা (Free hosting) ছোটখাট ব্যাক্তিগত ওয়েব সাইটের জন্য এই হোস্টিং ব্যাবহার করা হয়ে থাকে।Bandwith/Monthly Traffic খুব কম থাকে।নিরাপত্তা শক্ত হয়না।কোন ডোমেইন নামও পাবেননা। ২. শেয়ারড হোস্টিং-Shared (Virtual) Hosting এই হোস্টিং সবচেয়ে জনপ্রিয় এবং প্রচলিত।আমরা যে হোস্টিংগুলো ব্যাবহার করছি বা সাধারনত হোস্টিং প্রোভাইডাররা যে হোস্টিং অফার করে থাকে তা সব্ই শেয়ারড হোস্টিং।প্রফেশনাল বা কোন বড় সাইটের একটা স্বয়ংসম্পূর্ন সার্ভারের নির্দিষ্ট পরিমান সার্ভিস দরকার।এই সমস্ত সুবিধা নিজস্ব সার্ভারে নিয়ে আসতে গেলে বেশ ব্যায়বহুল হয়ে যায়।এদের জন্য Shared Hosting উপযুক্ত।এই সার্ভারের নিরাপত্তা কম থাকে কারন এখানে একসাথে অনেক Client এর সাইট(১০ থেকে শুরু করে আরও বেশি) একসাথে থাকে।এছাড়া আনলিমিটেড ডেটাবেস,ইমেইল,ব্যান্ডওয়াইথ এসব পাবেননা,সব সীমিত। ৩.ডেডিকেটেড হোস্টিং (Dedicated Hosting) এই হোস্টিং এর জন্য ডেডিকেটেড সার্ভার প্রয়োজন।এটা অনেক ব্যায়বহুল।যদি আপনার ওয়েবসাইট অনেক অনেক বড় হয় এবং শক্ত নিরাপত্তা দরকার তখন এই হোস্টিং করা চলে।এখানে আপনি অনেক ডোমেইন নাম,আনলিমিটেড ব্যান্ডওয়াইথ,ডেটাবেস এসব সুবিধা পাবেন। এই হোস্টিং ২ প্রকার Managed Hosting: হোস্টিং প্রোভাইডাররাই সব করে দেবে যেমন নিরাপত্তা,কোন সফটওয়ার ইনস্টল দেয়া ইত্যাদি এজন্য তাদেরকে নির্দিষ্ট পরিমান টাকা দিতে হবে। Unmanaged Hosting: আপনি যদি Server administrator হন অর্থ্যাৎ আপনি যদি নিজেই আপনার এই ওয়েব সার্ভারের সকল কাজ করে নিতে পারেন তাহলে এটা হবে Unmanaged Hosting. এতে আপনার অনেক অর্থ সেভ হবে।সার্ভার ম্যানেজ করা শেখা যায়।ওয়েবে হাজারটা টিউটোরিয়াল আছে ইচ্ছে করলে শিখে নিজের কাজ নিজেই চালাতে পারেন। ৪.Collocated Hosting Source: http://www.webcoachbd.com/

About admin

Check Also

সাইট সংরক্ষন করা

আপনার সাইট হ্যাক হতে পারে অথবা যে হোস্টিং প্রোভাইডারের কাছে হোস্ট করিয়েছেন তাদের হার্ডডিস্ক নষ্ট …

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *